22 বার প্রদর্শিত
06 ফেব্রুয়ারি "মোবাইল ফোন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (168 পয়েন্ট)

1 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
06 ফেব্রুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন (804 পয়েন্ট)
07 ফেব্রুয়ারি নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
টেলিফোন আবিষ্কারের পর থেকেই তারবিহীন টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার কথা গবেষক,বিজ্ঞানিরা ভাবতে শুরু করেন ।আমরা এতো বড় ইতিহাসের দিকে না যেয়ে দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধ থেকে শুর করবো ।দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের সময় অর্থাৎ ১৯৪০ সালে মিলিটারিরা রেডিও টেলিফোন ব্যবহার করে ।এই রেডিও টেলিফোন ব্যবস্থার আবিষ্কারক ছিলেন রেজিনালদ ফেসেন্দেন । তারপর ১৯৪৬ সালে প্রথম কল করা হয় একটি গাড়ী থেকে।১৯৪৬ সালের ১৭ ই জুন মিসউরির লাউস থেকে বেল টেলিফোন সার্ভিস এর আয়তায় প্রথম কল করা হয় । তারপর ১৯৪৬ সালের ২রা অক্টোবর শিকাগো শহর থেকে পুর্বের পথ অনুসরন করে এলিওন বেল টেলিফোন কোম্পানির মাধ্যমে আবার টেলিফোন কল করেন । এই টেলিফোনটি ছিল ভ্যাকুয়াম টিউবে তৈরী । এটার ওজন ছিল প্রায় ৩৬ কেজি অর্থাৎ ৮০ পাউন্ড । প্রথমে মেট্রো পলিট্রন এলাকার সকল ব্যবহারকারীর জন্য শুধু মাত্র একটা চ্যানেলই বরাদ্দ ছিল । পরবর্তীতে ৩ টি ব্যান্ডএর আয়তায় ৩২ টি চানেল এর মাধ্যমে যোগাযোগ করা হয় । এই বাবস্তায় যোগাযোগ চলছিল ১৯৮০ সাল পর্যন্ত । এর মধ্যে ১৯৭৩ সালে বিশ্ববিখ্যাত মটরলা কোম্পানির প্রধান জন মিচেল পোর্টেবল যোগাযোগ ব্যবস্থার দিকে নজর দেন – যার মাধ্যমে মুঠোফোন প্রযুক্তি উদ্ভাবনে গুরত্তপুর্ন ভুমিকা পালন করে । মিচেল তারবিহীন যোগাযোগ ব্যবস্থার দিকে হাত বাড়ান, যা যেকোনো জায়গায় থেকে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয় । মিচেল এর এই কাজের গুরত্তপুর্ন ব্যক্তি ছিলেন মটোরোলার গবেষক এবং নির্বাহী মাটিন কুপার । এই মার্ত্তিন কুপার প্রথম সেলুলার নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে সর্ব প্রথম মুঠোফোন আবিষ্কার করেন এবং বিজ্ঞানের ইতিহাসে নিজের নামটা স্বর্না অক্ষরে লিপিবদ্ধ করেন । প্রথম মুঠো ফোনটির ওজন ছিল ২,৫ পাউন্ড। এর দৈঘ্য ছিল ৯ ইঞ্চি, প্রস্ত ১,৭৫ ইঞ্চি এবং উচ্চতা ৫ ইঞ্চি । এটার টক টাইম ছিল ৩০ মিনিট এবং চার্জ ১০ ঘণ্টা । প্রথম বাণিজ্যিক মুঠোফোনটি ছিল মটোরোলার DynaTAC 8000X ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
25 ফেব্রুয়ারি "মোবাইল ফোন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন zarjijul (-28 পয়েন্ট)
3 টি উত্তর
21 ফেব্রুয়ারি "মোবাইল ফোন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন zarjijul (-28 পয়েন্ট)
আপনার প্রশ্নটি জানান
নিরবিক একটি প্রশ্ন উত্তর সাইট। এটি এমন একটি প্লাটফরম যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন।আর আপনি যদি সবজান্তা হয়ে থাকেন তাহলে অন্যের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।
...