259 বার প্রদর্শিত
"ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন

2 উত্তর

+2 টি ভোট
করেছেন
বাবা আর মায়ের অমতে করা বিবাহকে বিয়ে হিসেবেই গণ্য করা হয় না।
আমি কোনো এক হাদিসে পড়েছিলাম অনেক আগে।
আপনি কোনো ভালো হুজুরকে জিজ্ঞেস করে এর সত্যতা যাচাই করে নিতে পারেন।।
+1 টি ভোট
করেছেন
হজরত আয়েশার রা. বর্ণনা করেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এক সাহবীর বিয়ের খবর শুনে নির্দেশ দেন, বিয়ের ঘোষণা প্রদান কর এবং মসজিদে তা সম্পাদন কর। আর এ জন্যে দফ পেটাও। (দফ হলো একপিঠ বন্ধ একপিঠ খোলা এক ধরনের বাজনা।) আরেক ধরনের বিয়ে প্রচলিত রয়েছে ইদানিং। সেটার নাম লাভ ম্যারেজ। যা অধিকাংশ সময়ই বাবা মা বা পরিবারের সম্মতি ব্যতিত করা হয়। এ ধরনের লুকিয়ে বিয়ে করা ইসলামে একেবারেই অবৈধ। বিয়ে মুসলমানদের জন্য ফরজ। আর আল্লাহ তায়ালা সন্তানের অভিভাবককে এ কাজ সম্পন্ন করতে বলেছেন। “আর তোমরা তোমাদের মধ্যে অবিবাহিত নারী-পুরুষদের বিবাহ দাও।” [সূরা নূর, ২৪:৩২] হাদিসেও নবী করিম সা. এ ধলনের লুকিয়ে বিয়েকে স্পষ্টভাবে অবৈধ বলে ঘোষণা করেছেন। নবী সা. বলেছেন, “যারা তার অভিভাবকের (বাবা-মা কিংবা বড়ভাই এক কথায় অবিভাবক) অনুমতি ছাড়া বিয়ে করবে তার বিবাহ বাতিল, তার বিবাহ বাতিল, তার বিবাহ বাতিল।” [হাদিসটি তিরমিযি (১০২১) ও অন্যান্য গ্রš’কার কর্তৃক সংকলিত এবং হাদিসটি সহীহ] মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. এর এই ব্যাখ্যায় স্পষ্টই প্রমানিত যে, বাবা-মা কিংবা অভিভাবকদের বিনা অনুমতিতে পালিয়ে বিয়ে করাকে ইসলাম সমর্থন করে না। নবীজি সা. এরূপ বিয়েকে সরাসরি বাতিল বলে ঘোষণা করেছেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
0 টি উত্তর
1 উত্তর
1 উত্তর
নির্বিক এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন এবং পাশাপাশি অন্য কারো প্রশ্নের উত্তর জানা থাকলে তাদের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।
...