search
প্রবেশ
নির্বিক এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন এবং পাশাপাশি অন্য কারো প্রশ্নের উত্তর জানা থাকলে তাদের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।প্রশ্ন উত্তর করতে এখনই নিবন্ধন করুন।
34 বার প্রদর্শিত
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে

2 উত্তর

0 টি ভোট
গরম-ঠান্ডা আবার শুধু ঠান্ডার কারণেও আমাদের খুশখুসে কাশি হয়। আর শীতকালে হয়  অসাবধানতার কারনে। খুসখুসে কাশি একবার শুরু হলে তাকে থামানো বেশ কষ্টদায়ক হয়ে পড়ে। তাই যেকোনো পরিবেশে শুষ্ক কাশি খুবই বিরক্তির সৃষ্টি করে। এতে অনেক কষ্টও হয়। টি দ্রুত উপায়ে কাশি কমিয়ে ফেলার চেষ্টা করা উচিৎ।

আসুন জেনে নেই  শুষ্ক খুশখুসে কাশি থেকে দ্রুত পরিত্রাণের উপায় –

১. শুষ্ক কাশিতে প্রচুর পানি পান করতে হয়। এবং অবশ্যই সেই পানি হালকা গরম হতে হবে। সারাদিনই অল্প অল্প করে গরম পানি পান করলে, খুসখুসে কাশি দূর হয়ে যাবে। দিনে অন্তত ১২ গ্লাস হালকা গরম পানি পান করুন। কাশি থেকে কিছুটা রক্ষা পাওয়া যাবে।


 
 
  
২. সিগারেটের অভ্যাস থাকলে তা তৎক্ষণাৎ ছেড়ে দিন। সিগারেট কাশির উদ্রেগ বাড়িয়ে দেয়। সেই সাথে পাশে কেউ ধূমপান করলে তাকেও নিষেধ করে দিন।

৩. প্রতিদিন চারটি তুলসী পাতা নিয়ে, তার সাথে মধু মিশিয়ে চিবিয়ে খেয়ে নিন। চায়ের সাথে তুলসী পাতা মিশিয়েও খাওয়া যায়। তুলসী পাতা দ্রুত খুসখুসে কাশি নিরাময়ে সহায়ক।

৪. প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে এক চামচ মধু খেয়ে নিন। মধু কাশি কমাতে সাহায্য করে।

৫. আদা চা খুসখুসে কাশি দূর করতে সাহায্য করে।
0 টি ভোট
খুসখুসে শুষ্ক কাশি থেকে সহজে পরিত্রাণের উপায়ঃ শিশুদের কাশির জন্য আপনি দুই চা-চামচ পুদিনা/তুলসি রসের সাথে এক চামচ মধু দিন । এটা চমৎকার কাজ করে । গ্রামাঞ্চলে আঙ্গুরের রস এবং মধুও ব্যবহার করা হয় । এটা শুষ্ক কাশির জন্যও ভালো । গরম দুধের সাথে মধুও কাশির সমস্যার জন্য উপকারী । আপনি আদা দিয়ে চা পান পারেন, যেটাও কাশির জন্য ঘরোয়া অরোগ্যময় ঔষধ হিসেবে ভালো । ধন্যাবাদ, সবাইকে ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর 31 বার প্রদর্শিত
1 উত্তর 36 বার প্রদর্শিত
36 বার প্রদর্শিত 02 জুন 2018 "সাধারণ" বিভাগে জিজ্ঞাসা builderbd
1 উত্তর 22 বার প্রদর্শিত
1 উত্তর 72 বার প্রদর্শিত
1 উত্তর 24 বার প্রদর্শিত
...