নিরভিকে ডট কমে আপনাকে স্বাগতম।এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন।প্রশ্ন করতে Ask a Question ক্লিক করুন।
3 like 0 dislike
8 views
asked in সাধারণ by (1,788 points)

Your answer

প্রশ্নটি ভালোভাবে বুঝে যাচাই করে গুছিয়ে উত্তর দিন। আপনি যতটুকু জানেন তার সর্বোচ্চটুকু দেয়ার চেষ্টা করুন যাতে প্রশ্নকর্তা সন্তুষ্ট হয়। আপনার একটি ভুল উত্তর/পরামর্শ অন্য সদস্যদের বিভ্রান্ত করতে পারে এবং সমস্যা আরও বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই উত্তর দেয়ার পূর্বে নিশ্চিত হয়ে নিন আপনার উত্তরটি তথ্যবহুল যুক্তিযুক্ত কি না।শুদ্ধ বানানে উত্তরটি লিখার চেষ্টা করুন।ধন্যবাদ।
Your name to display (optional):
Privacy: Your email address will only be used for sending these notifications.

1 Answer

0 like 0 dislike
answered by (1,788 points)
আমাদের বর্তমান মুসলিম সমাজ সবক্ষেত্রেই অমুসলিমদের অনুসরণ করার পাশাপাশি  কিছু ক্ষেত্রে অনুকরণও করছে। তাদের কৃষ্টি, কালচার, সংস্কৃতি, অপসংস্কৃতি গ্রহণ করছে। কোনরুপ যাচাই বাছাই না করেই তারা গড্ডালিকা প্রবাহে মিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে সংস্কৃতির ক্ষেত্রে আজ মুসলিমরা অসহায়। তারা যেন ইসলামী সংস্কৃতিকে ভুল আর বিজাতীয় অপসংস্কৃতিকেই সংস্কৃতি ভাবছি। এগুলোর অনুসরণ করছে। যত সব অপসংস্কৃতির এই প্রবাহ তার অন্যতম হলো আচার-অনুষ্ঠানকেন্দ্রিক।

এরকম বিবাহের মতো এই পবিত্র কাজকেও আমরা আজ অনুষ্ঠাননির্ভর করে ফেলেছি। এর সাথে যা করছি তা পুরোটাই হিন্দুয়ানী এবং পশ্চিমা সংস্কৃতি। যার পুরোটাই অনৈসলামিক। বিবাহের মতো এই পবিত্র বিধান সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে এবং অপসংস্কৃতিকে তুলে ধরতে শাইখ নাসিরুদ্দীন আলবানী (রহ)-এর আদাবুয যিফাফ বা বাসর রাতের আদর্শ বইটি  অনন্য। এ বইয়ে তিনি সংস্কৃতির হক বাতিলের পার্থক্য তুলে ধরেছেন, যাতে উম্মাতে মুহাম্মাদী নিজস্ব সংস্কৃতিতে চলে আল্লাহর সান্নিধ্য অর্জন করতে পারে। শেইখ এই বই রচনায় তত্ত্ববহুল গভীর পান্ডিত্যের পরিচয় দিয়েছেন। এ কারণে জাতি তাঁর নিকট চিরকৃতজ্ঞঞ। বিশেষত: তিনি পুস্তকটিতে মহিলাদের স্বর্ণ ব্যবহার সম্পর্কে একটি  অধ্যায় রচনা করেছেন। বিষয়টি তত্ত্ববহুলে বটে কিন্তু এটি তার একটি স্বতন্ত্র গবেষণা ও তাঁর ব্যতিক্রমধর্মী ভুমিকা। বিষয়টি সঠিক হলে তিনি দ্বিগুন সাওয়াবের অধিকারী হবেন এবং ভুল হলেও একগুণ সওয়াবের অধিকারী হবেন।

পাঠকের প্রতি অনুরোধ সওয়াব প্রাপ্তির বাসনায় বিষয়ীট গবেষণাধীন রাখা উচিত হবে এবং বিবাদ-বিসম্বাদ মতানৈক্য এড়িয়ে ঐক্যে অটুুট থেকে মুসলিম সভ্যতা সংস্কৃতি পালনের মাধ্যমে তাকওয়াবান হওয়ার প্রতিযোগীতায় উপনীত হওয়া বাঞ্জনীয় হবে।

এই গুরুত্বপূর্ণ বইতি যারা বিবাহিত বা খুব শিঘ্রই বিবাহিত করতে যাচ্চেন তাদের সকলকে পড়ার অনুরোধ করা হচ্ছে। আল্লাহ এই বইটির প্রকাশক, ও যারা অনলাইনে প্রকাশের জন্য কাজ করেছেন তাদের সকলকে উত্তম প্রতিদান দান করুন। আমীন
নিরবিক ডট কম একটি প্রশ্ন উত্তর সাইট। এটি এমন একটি প্লাটফরম যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন।আর আপনি যদি সবজান্তা হয়ে থাকেন তাহলে অন্যের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।
...