search
প্রবেশ
নির্বিক এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন এবং পাশাপাশি অন্য কারো প্রশ্নের উত্তর জানা থাকলে তাদের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।প্রশ্ন উত্তর করতে এখনই নিবন্ধন করুন।
194 বার প্রদর্শিত
"রূপচর্চা" বিভাগে

4 উত্তর

3 টি ভোট
শীতে ত্বকের যত্নঃ

শীতকালে শুষ্ক শীতল হাওয়া ও বাতাসে বেড়ে যাওয়া ধুলাবালুর কারণে ত্বক হয়ে যায় খসখসে ও মলিন। এর ফলে দেখা দেয় নানা সমস্যা, যেমন ত্বক ফেটে যাওয়া, ত্বকে চুলকানি ইত্যাদি। তাই শীতকালে ত্বকের সুস্বাস্থ্য রক্ষায় দরকার বাড়তি যত্ন ও সতর্কতা। ত্বকের শুষ্কতা শীতে শুষ্ক আবহাওয়ার জন্য ত্বক স্বাভাবিক আর্দ্রতা দ্রুত হারিয়ে ফেলে। তাই শীতকালে গোসলে সাবান কম ব্যবহার করুন। আর করলেও ময়েশ্চারাইজিং সাবান ব্যবহার করুন। এতে ত্বকে খসখসে ভাব কমে আসবে। রাতে ঘুমানোর আগে ও গোসলের পর নিয়মিত ময়েশ্চারাইজিং লোশন ব্যবহার করলে ত্বকের খসখসে ভাব দূর হবে। ফলে চুলকানিও হবে না এবং ত্বকও ফাটবে না। ত্বকের আর্দ্রতা ও ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে রোজ গোসলের পর এবং রাতে ঘুমানোর আগে অলিভ অয়েল অথবা লিকুইড প্যারাফিন মাখতে পারেন। চুলের যত্ন শীতের সময় চুলে খুশকির উপদ্রব বেড়ে যায়। খুশকিমুক্ত থাকতে নিয়মিত সপ্তাহে দুই দিন কিটোকোনাজল শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। হাতের তালু ও পায়ের তলার যত্ন এ সময় ১০ ভাগ ইউরিয়া, ভেসলিন লাগালে হাতের তালু অনেকটা মসৃণ হয়ে আসে। শীতে অনেকের পায়ের তলা ফেটে যায়। ৫ ভাগ সেলিসাইলিক অ্যাসিড অয়েন্টমেন্ট অথবা ভেসলিন নিয়মিত মাখতে পারেন। মুখের যত্ন ভালো ময়েশ্চা- রাইজারযুক্ত ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। যাঁদের ব্রণের সমস্যা আছে, তাঁরা ক্রিমের সঙ্গে একটু পানি মিশিয়ে নিতে পারেন। শীত আসছে বলে ভাববেন না যে সানস্ক্রিন ব্যবহার করার প্রয়োজনীতা কমে গেছে। শীতকালেও বাইরে বের হওয়ার ৩০ মিনিট আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। ঠোঁটের যত্ন ঠান্ডা বাতাসে ঠোঁট বারবার ফেটে যায়। কখনো এতটাই ফেটে যায় যে চামড়া উঠে আসে ও রক্ত বের হয়। কখনোই জিভ দিয়ে ঠোঁট ভেজানো উচিত নয়। কুসুম গরম পানিতে পরিষ্কার একটি কাপড় ভিজিয়ে নিয়ে ঠোঁটে হালকা করে তিন-চারবার চাপ দিন। তারপর ভেসলিন বা গ্লিসারিন পাতলা করে লাগিয়ে নিন। ঠোঁটের জন্য ভালো কোনো প্রসাধনী ব্যাগে রাখুন এবং দিনে তিন- চারবার লাগাতে পারেন। যাঁদের পুরোনো চর্মরোগ যেমন সোরিয়াসিস, একজিমা, ইকথায়সিস ইত্যাদি আছে, তাঁদের ত্বকের সমস্যা এই সময় বেড়ে যেতে পারে। তাই তাঁদের হতে হবে আরও সচেতন। প্রয়োজনে আগে থেকেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

collect from: প্রথম আলো
সুন্দর উত্তর
3 টি ভোট

শীত এলেই মুখের বাড়তি যত্ন নিতে হয়। ঠান্ডা আবহাওয়ায় আপনার মুখমণ্ডল রুক্ষ্ম হয়ে ওঠে। তাই কয়েকটি সহজ পদ্ধতিতে আপনার মুখমণ্ডল সুন্দর ও মসৃণ রাখতে পারেন।

১. প্রথমে মসুরের ডাল মিহি করে বেটে তাতে সামান্য মধু মিশিয়ে ১০-১৫ মিনিট মুখে দিয়ে রাখার পর টানটান হয়ে আসলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।


২. সারাদিন বাইরে থেকে এসে আপনি খুব সহজেই একটা বা অর্ধেক আলু মিহি করে বেটে ৫-১০ মিনিট মুখে দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার সারাদিনের মুখে লাগা ধুলা-বালি ও কালো দাগ পড়া থেকে আপনার মুখকে রক্ষা করবে।


৩. চালের বা গমের ময়দার সাথে সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে ৫-১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার মুখমণ্ডল অনেক ভালো থাকবে।


৪. পাকা পেঁপে, তরমুজ ও টমেটো খুব ভাল করে হাত দিয়ে চটকে পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগান। ১০-১৫ মিনিট রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বক নরম ও মসৃণ থাকে।


৫. ত্বক ভালো রাখার জন্য পানি হচ্ছে প্রধান উপকরণ। বেশি বেশি পানি পান করবেন। আর যখনি সময় পাবেন গরমের সময় ঠান্ডা আর শীতের সময় হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নেবেন।

আশা করি সবার কাজে লাগবে ধন্যবাদ।

সুন্দর উত্তর দিয়েছেন। 
–2 টি ভোট
শীতে ত্বকের যন্তে বাংলাদেশের ১নংVaseline ব্যবহার করেন
–3 টি ভোট
শীতে ত্বকের যত্ন নিতে গ্লিসারিন ও মেরিল ও তৈল ব্যাবহার করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্ন

1 উত্তর
27 নভেম্বর 2018 "রূপচর্চা" বিভাগে জিজ্ঞাসা Rifat
0 টি উত্তর
যাদের মুখ খুব তৈলাক্ত তাদের জন্য কোন সান স্ক্রিনক্রিম ব্যবহার করা ভালো হবে?
22 সেপ্টেম্বর 2018 "রূপচর্চা" বিভাগে জিজ্ঞাসা ফারহান