230 বার প্রদর্শিত
"ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে করেছেন

2 উত্তর

+1 টি ভোট
করেছেন
আপনি যদি নিজের কৃতকর্মের জন্য আল্লাহর কাছে বিনয়ের সহিত মাফ চান তাহলে আবশ্যই আল্লাহ পাক মাফ করবেন। নবী করীম সাঃ বলেছেন যে ব্যাক্তি নিজের গোনাহের উপর লজ্জিত হয়ে এবং এ নিয়ত করবে যে আমি আর এ গোনাহ করব না তাহলে আল্লাহ পাক তাকে এমন ভাবে মাফ করবেন যেন সে আজকে ভূমিষ্ঠ হলো।
0 টি ভোট
করেছেন
আল্লাহ তায়ালার মাফের দরজা অনেক বড়।যে গুনাহটা মানে হস্তুমৈতুনের কথা বলা হয়েছে এটি হল জিনা।কেও যদি এরখম পাপা করে তাহলে আল্লাহ তায়ালা তাকে সীমালঙ্গনকারী ঘোষনা করেন। তিনি বলেছেন কারো যদি সক্ষমতা থাকে তাহলে বিবাহ করতে অন্যতায় রোজা পালন করতে।এবং তিনি আরো বলেছেন সীমালঙ্গনকারীদের জাহান্নামের আগুষে পুড়াবেন। তবে এই পাপ টা কিন্তু শিরকের কাতারে পড়েনা ।যদি এই পাপের কারনে লজ্জিত হয়ে আল্লাহ তায়লার কাছে কাশদিলে চুখের পানি চেড়ে দিয়ে মাগফেরাতের দোয়া করা হয় আর ভবিষ্যতে এরখম গুনাহ করব না সেই তাওবা করা হয় তাহলে আল্লাহ চাহে তো তিনি অবশ্যই মাপ করে দিবেন। আল্লাহ তায়ালা জানিয়ে দিয়েছেন আমি একমাত্র শিরকের গুনাহ মাপ করিনা ।আর হস্তুমৈতুন গুনাটা শিরক নয়।অতএব অপনি বা আমরা যদি কাশ দিলে তাওবা করি তাহলে আল্লাহ অবশ্যই মাপ করে দিবেন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

নির্বিক এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন এবং পাশাপাশি অন্য কারো প্রশ্নের উত্তর জানা থাকলে তাদের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।
...