search
প্রবেশ
নির্বিক ডট কম এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করে উত্তর জেনে নিতে পারবেন এবং পাশাপাশি অন্য কারো প্রশ্নের উত্তর জানা থাকলে তাদের উত্তর দিয়ে সহযোগিতা করতে পারবেন।প্রশ্ন উত্তর করতে এখনই নিবন্ধন করুন।
1 টি ভোট
24 বার প্রদর্শিত
ফজরের নামাজের ফজিলত সম্পর্কে জানতে চাই
24 এপ্রিল 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা

1 উত্তর

1 টি ভোট
প্রথম : ফজরের নামাজে দাঁড়ানো, সারা রাত দাঁড়িয়ে নামাজ পড়ার সমান। রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি জামাতের সঙ্গে এশার নামাজ আদায় করল, সে যেন অর্ধেক রাত জেগে নামাজ পড়ল। আর যে ব্যক্তি ফজরের নামাজ জামাতের সঙ্গে পড়ল, সে যেন পুরো রাত জেগে নামাজ পড়ল।’ (মুসলিম)।

দ্বিতীয় : সে দিনের পুরোটা আল্লাহর যিম্মায় থাকার দুর্লভ সৌভাগ্য। ফজরের নামাজ পড়লেই শুধু এ ঈর্ষণীয় সৌভাগ্য লাভ করা যাবে। রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি ফজরের নামাজ পড়বে, সে আল্লাহর জিম্মায় থাকবে।’ (মুসলিম)।

তৃতীয় : ফজরের নামাজ কেয়ামতের দিন নূর হয়ে দেখা দেবে। রাসুল (সা.) বলেন, ‘‘যারা রাতের আঁধারে মসজিদের দিকে হেঁটে যায়, তাদের কেয়ামতের দিন পরিপূর্ণ ‘নূর’ প্রাপ্তির সুসংবাদ দাও।” (আবু দাউদ)।

চতুর্থ : দুই শীতল নামাজ তথা ফজর ও আসর আদায়কারীর জন্য জান্নাত। রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি দুই শীতল (নামাজ) পড়বে, জান্নাতে প্রবেশ করবে।’ (বোখারি)।

পঞ্চম : রিজিকে বরকত আসবে। আল্লামা ইবনুল কাইয়িম (রহ.) বলেছেন, সকালবেলার ঘুম ঘরে রিজিক আসতে বাধা দেয়। কেননা তখন রিজিক বণ্টন করা হয়।

ষষ্ঠ : ফজরের নামাজ পড়লে দুনিয়া ও আখেরাতের সেরা বস্তু অর্জিত হয়ে যাবে। ‘ফজরের দুই রাকাত নামাজ দুনিয়া ও তার মধ্যে যা কিছু আছে, সবার চেয়ে শ্রেষ্ঠ।’ (তিরমিজি)।


সপ্তম : সরাসরি আল্লাহর দরবারে নিজের নাম আলোচিত হবে। রাসুল (সা.) বলেন, ‘তোমাদের কাছে পালাক্রমে দিনে ও রাতে ফেরেশতারা আসে। তারা আসর ও ফজরের সময় একত্রিত হয়। যারা রাতের কর্তব্যে ছিল তারা উপরে উঠে যায়। আল্লাহ তো সব জানেন, তবু ফেরেশতাদের প্রশ্ন করেন, আমার বান্দাদের কেমন রেখে এলে? আমরা তাদের নামাজরত রেখে এসেছি। যখন গিয়েছিলাম, তখনও তারা নামাজরত ছিল।’ (বোখারি)।

অষ্টম : ফজরের নামাজ দিয়ে দিনটা শুরু করলে, পুরো দিনের কার্যক্রমের একটা বরকতম সূচনা হবে। নবী (সা.) দোয়া করেছেন, ‘হে আল্লাহ! আমার উম্মতের জন্য তার সকালবেলায় বরকত দান করুন।’ (তিরমিজি)।


এজন্যই দিনের শুরুটা ভালো কিছু দিয়ে শুরু করা মানেই হলো ফজর নামাজটা পড়া। আরও ভালো হয় যদি তাহাজ্জুদ দিয়ে শুরু করা যায়
24 এপ্রিল 2018 উত্তর প্রদান

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর 12 বার প্রদর্শিত
12 বার প্রদর্শিত 05 জুন 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা Md Munir Hasan
0 টি ভোট
1 উত্তর 56 বার প্রদর্শিত
56 বার প্রদর্শিত
তাহাজ্জুদ নামাজের গুরুত্ব ও ফজিলত জানতে চাই।
04 এপ্রিল "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা Farhan Monsur
0 টি ভোট
1 উত্তর 47 বার প্রদর্শিত
47 বার প্রদর্শিত 23 সেপ্টেম্বর 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা molla
1 টি ভোট
1 উত্তর 26 বার প্রদর্শিত
26 বার প্রদর্শিত 05 মে 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা builderbd
1 টি ভোট
1 উত্তর 46 বার প্রদর্শিত
46 বার প্রদর্শিত 24 এপ্রিল 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা Md tushar
0 টি ভোট
1 উত্তর 126 বার প্রদর্শিত
126 বার প্রদর্শিত
মাগরিবের নামাজের ফজিলত সম্পর্কে জানান কেউ
24 এপ্রিল 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা Md tushar
...